• Wednesday, 24 July 2024

তীব্র রোদে মোটরসাইকেল চালাতে বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা

তীব্র রোদে মোটরসাইকেল চালাতে বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা

দেশজুড়ে তীব্র তাপদাহেও থেমে নেই জীবনের ব্যস্ততা। প্রতিদিনই কাজের প্রয়োজনে বের হচ্ছেন হাজারো মানুষ। কেউ পায়ে হেটে, কেউ বাসে বা রিকশায়, গাড়িতে চড়ে গন্তব্যে পৌছাচ্ছেন। এরমধ্যে যাতায়াতের বাহন হিসেবে বেশি ব্যবহার হচ্ছে মোটরসাইকেল। এক স্থান থেকে অন্য স্থানে দ্রুত পৌঁছানো যায় বলে ব্যস্ত এই শহরে এখন মোটরসাইকেলের জনপ্রিয়তাই বেশি। তবে এই গরমে দীর্ঘসময় মোটরসাইকেল চালালে অস্বস্তি বাড়ে। সেই সঙ্গে মোটরসাইকেলেরও নানা সমস্যা যুক্ত হয়। তাই গরমে মোটরসাইকেল চালাতে কিছু বিষয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।


বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রচণ্ড গরমে মোটরসাইকেল চালানোর সময় অসতর্ক হলেই হতে পারে বড় ক্ষতি। বিশেষ করে এই গরমে মোটরসাইকেলের কয়েকটি পার্টস যেমন, টায়ার ও ফুয়েল ট্যাংকের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাছাড়া কড়া রোদে মোটরসাইকেল পার্ক করে রাখাও বিপদজ্জনক। হালকা রঙের কাপড় দিয়ে এটি ঢেকে রাখতে হবে।

হাইড্রেটেড থাকুন- মোটরসাইকেল হোক বা সাইকেলে গিয়ারের চাপে গরম লাগবেই। তাই পানি সঙ্গেই রাখুন। ত্বকে সানস্ক্রিন লাগিয়ে মোটরসাইকেল চালান। এই সময় হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি থাকে। তাই দীর্ঘসময় মোটরসাইকেল নিয়ে রোদে দাড়িয়ে থাকবেন না।

বাইকের কুল্যান্ট- কুল্যান্ট হলো এক ধরণের তরল। যা মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের মধ্যে তাপের ভারসাম্য বজায় রাখে। এটি কুলিং সিস্টেম হিসেবে কাজ করে। অ্যান্টিফ্রিজ ও পানির মিশ্রণে তৈরি এই তরল গরমে মোটরসাইকেলকে সুরক্ষিত রাখে। তাই গরমে মোটরসাইকেলের কুল্যান্টের অবস্থা ঠিক আছে কিনা তা দেখে নিন। প্রয়োজনে সার্ভিসিং করে নিন।

 

ইলেকট্রিক পার্টস- প্রচণ্ড গরমে মোটরসাইকেলের একাধিক ইলেকট্রিক পার্টসে ক্ষতি হতে পারে। তাই চালানোর সময় অতিরিক্ত ফিউজ সঙ্গে রাখুন। ব্যাটারি ঠিক আছে কিনা দেখে নিন। গরমে ব্যাটারির ওপরও চাপ পড়তে পারে।

টায়ার- তীব্র গরমে টায়ার প্রেশার একটু কম রাখুন। চাকায় বাতাসের বেগ বেশি থাকলে গরমের সময় তা ফেটে যেতে পারে। যারা হাই স্পিডে মোটরসাইকেল চালান তাদের চাকা অত্যাধিক হিট হয়। তাই সাবধানে থাকুন।

ফুয়েল ট্যাংক- তীব্র গরমে মোটরসাইকেলের ফুয়েল ট্যাংক পূর্ণ করা উচিত নয়। কারণ তাপ সৃষ্টি হলে পেট্রোল কিংবা ডিজেল দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ফুয়েল ট্যাংক ভরা থাকলে জ্বালানি উপচে পড়তে পারে। যা থেকে বড় দুর্ঘটনাও ঘটে। এই সময় ফুয়েল ট্যাংক চার ভাগের তিন ভাগ পূর্ণ করুন।

চেইন লুব্রিকেট- গরমের সময় বাইকের চেইন নিয়মিত পরিষ্কার ও লুব্রিকেট করুন। এতে মোটরসাইকেল আরও মসৃণভাবে চালানো যাবে। লুব্রিকেটিং করার আগে সব মোটরপার্টস অবশ্যই পরিষ্কার করুন।

পোশাক- মোটরসাইকেল চালানোর সময় হালকা পোশাক পরুন। কালার চেঞ্জিং গ্লাস ব্যবহার করুন। এটি চোখে আরাম দেবে। হালকা রঙের সুতি জামা পরতে পারেন। ফুলহাতার জামা পরবেন। এতে ত্বক রোদের তাপে পুড়ে যাবে না।

হেলমেট- মোটরসাইকেল চালানোর সময় হেলমেট ব্যবহার করুন। আপনি নিজে পরবেন এবং আপনার সঙ্গে কেউ থাকলে তাকেও হেলমেট পরাবেন। এতে রোদের তাপ মাথায় পরবে না। বেশি ভারী হেলমেট ব্যবহার না করাই ভালো।

Comment / Reply From