ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৩:৫৩
বাংলা বাংলা English English

মঙ্গলবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাজের ফাঁকে ঘুম, ক্ষতি নাকি উপকারী?


যদি প্রশ্ন করা হয় এক টানা কাজ করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়লে কী করেন, অনেকেই বলবেন এক কাপ কফি কিংবা অন্য কোনো গরম পানীয় নিয়ে কিছুটা সময় কাটান। কেউ বা একটু হাঁটাহাঁটি করেন। কিন্তু এ সব কোনো কিছুরই প্রয়োজন নেই।

অতিরিক্ত কাজের চাপে ক্লান্ত হয়ে গেলে কয়েক মিনিট ঘুমিয়ে নিতে পারেন। এর মতো ‌কাজের অভ্যাস কমই হয়। একবারে অনেকটা কর্মক্ষমতা বাড়ানোর জন্য এর চেয়ে বেশি কার্যকর উপায় কমই আছে।

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের একটি প্রতিবেদনে এমনই তথ্য জানানো হয়েছে।

অনেকেই বলেন, এক বার ঘুমিয়ে পড়লে কাজের ক্ষতি হয়ে যাবে। কাজের মাঝে আধ ঘণ্টা ঘুমালেই সেই ঘুম গাঢ় হয়ে যায়। এর ফলে ঘুমের মাঝে উঠতে অসুবিধা হয়। আর যদি বা উঠে পড়লেন, তা হলেও নতুন করে কাজে মন বসানো কঠিন হয়।

কেউ কেউ আবার বলেন কাজের মাঝে এমন ঘুমের অভ্যাস রাতের ঘুম নষ্টও করতে পারে। তার প্রভাবও পড়বে শরীরের ওপর। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন অন্য কথা। ক্ষণিকের ঘুমই বাড়াতে পারে কাজের ক্ষমতা।

কত ক্ষণ ঘুমাবেন?

কাজের ফাঁকে ১০ থেকে ২০ মিনিট ঘুমালে শরীরের কোনো ক্ষতি হয় না। বরং টানা কাজ করার একঘেয়েমি কেটে যায়। কাজে মনোযোগ বাড়ে। ক্লান্তি একেবারে কেটে যায়। মন ভালো হয়। সব মিলে তাড়াতাড়ি কাজ হয়।

‘সাইকিয়াট্রি অ্যান্ড ক্লিনিক্যাল নিউরোসায়েন্সেস’ পত্রিকায় ১৯৯৮ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, কাজের ফাঁকে দুপুরের দিকে ২০ মিনিট ঘুমিয়ে নেওয়া গেলে শরীর ঝরঝরে হয়। তাতে সবচেয়ে ভালো হয় কাজ।