ঢাকা, শুক্রবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি, দুপুর ১:০০
বাংলা বাংলা English English

সাড়ে ১২ কোটি টাকা পাচারের চেষ্টা

তৈরি পোশাকের স্যাম্পলের (নমুনা) আড়ালে সাড়ে ১২ কোটি টাকার সমমূল্যের বিদেশি মুদ্রা পাচারকালে তা জব্দ করেছে শাহজালাল বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজের কাস্টমস।

সৌদি রিয়েল ও সিঙ্গাপুরি ডলার পাচারের এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে স্টার লাইন এক্সপ্রেস নামে ফ্রেইটার প্রতিষ্ঠানের এক কর্মীকে। অর্থ ও মাদকসহ বিভিন্ন ধরনের পাচাররোধে কার্গোভিলেজে পণ্যের স্ক্যানিংয়ের ক্ষেত্রে আরো জোরালো কার্যক্রম চলছে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দর পরিচালক।

শাহজালাল বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজে যেখান থেকে নিয়মিত বিদেশে বিভিন্ন রকম পণ্য রপ্তানি হয়।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে সিঙ্গাপুরগামী একটি কার্টন তল্লাশীর সময় সন্দেহ হয় কাস্টমস কর্মকর্তাদের। গার্মেন্টেসের স্যাম্পল হিসেবে পাঠানো চালানটি খুলে পাওয়া যায় কার্বন পেপারে মোড়নো বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা।

গণনা শেষে ৫৪ লাখ ৭৫ হাজার সৌদি রিয়েল এবং ২০ হাজার ২শ’ সিঙ্গাপুরি ডলার পাওয়া যায় কার্টনটিতে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১২ কোটি ৫২ লাখ টাকা।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক তৌহিদ-উল আহসান মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত তুলে ধরেন। তিনি জানান, এঘটনায় স্টার লাইনের এক কর্মী হাসান আলীকে আটক করা হয়েছে।
অর্থ ও মাদকসহ যে কোন ধরনের পাচাররোধে বিমানন্দরের প্রযুক্তিগত সক্ষমতা ও জনবল বাড়ানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তৌহিদ-উল আহসান বলেন, শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্গোভিলেজে আরো আধুনিক স্ক্যানিং মেশিন স্থাপন ও সিসি টিভির পরিধি বাড়ানো হচ্ছে। ভবিষ্যতে এমন পাচারের ঘটনা প্রতিরোধে সব রকম ব্যবস্থায় জোর দেয়া হচ্ছে।

অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন জানিয়ে এমন ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির সুপারিশ করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।