ঢাকা, শুক্রবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি, দুপুর ১২:২০
বাংলা বাংলা English English

পাবনার আধুনিক নৌ-বন্দর প্রকল্প স্থবির হয়ে পড়েছে

জমি অধিগ্রহণ জটিলতায় স্থবির হয়ে পড়েছে পাবনার নগরবাড়ী আধুনিক নৌ-বন্দর প্রকল্প। নির্ধারিত মেয়াদে প্রকল্পের কাজ হয়েছে মাত্র ২৫ শতাংশ। ক্ষতিপূরণের অর্থ না পেয়ে জমিদাতারা আন্দোলনে নামায় বর্ধিত মেয়াদেও কাজ শেষ হওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

উত্তরাঞ্চলে পণ্য পরিবহন সুবিধা বাড়াতে ২০১৮ সালে পাবনার নগরবাড়ীতে আন্তর্জাতিক মানের নদী বন্দর নির্মাণের মেগা প্রকল্প হাতে নেয় সরকার।

২০২১ সালের জুনে প্রকল্পটি শেষ হবার কথা থাকলেও নির্ধারিত সময়ে ২৫ শতাংশের বেশি কাজ এগোয়নি। সম্প্রতি, মেয়াদ বেড়েছে এক বছর। এতে ৫১৩ কোটি টাকা বরাদ্দের সঙ্গে যোগ হয়েছে আরও ৩৯ কোটি টাকা। কিন্তু ভূমি অধিগ্রহণ নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় গতি আসেনি প্রকল্পের কাজে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

স্থানীয়রা বলছেন, তাদের যে পরিমাণ টাকা দেওয়ার কথা ছিল তা তারা পাননি। কলুর বলদের মতো তাদেরকে ঘোরানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করছেন অনেকে।

নৌবন্দর আধুনিকায়নে প্রকল্পটিতে রঘুনাথপুর মৌজায় ৩৬ একর জমি অধিগ্রহণ হয়েছে। ক্ষতিপূরণে ৯০ কোটি টাকা হস্তান্তরও হয়েছে জেলা প্রশাসনে। তারপরও দীর্ঘ তিন বছরেও ক্ষতিপূরণ না পাওয়ার অভিযোগ ভূমি মালিকদের।

ভূমি মালিকরা বলছেন, গত ২০০ বছরেও এই সম্পত্তির মালিক ছিলেন না। ভুয়া মামলা করে এই সম্পত্তির দাবি করা হচ্ছে।

অবশ্য সম্প্রতি পরিদর্শনে এসে নৌ পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী প্রকৃত ভূমি মালিকেরাই ক্ষতিপূরণ পাবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

তিনি বলেন, পেপারস যাদের আছে তারাই জমির মূল্য পাবে। আমরা কাগজপত্র দেখে, স্থানীয় প্রশাসন ঠিক করবে জমির প্রকৃত মালিক কে।

কয়েক শতাব্দীর ঐতিহ্যবাহী এ ঘাটটি সচল করতে প্রকল্পটি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জেলাবাসীর।