ঢাকা, শুক্রবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি, সকাল ১১:২৩
বাংলা বাংলা English English

কুয়া খনন করেই মিলল ৮৪৮ কোটি টাকার পাথর (ভিডিও)

বাড়ির পেছনে কুয়া খনন করার সময় কোদালের এক কোপেই মিলেছে ৮৪৮ কোটি টাকার মূল্যবান পাথর। সেই সঙ্গে পাথরের মালিক পেয়েছেন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় নীলাখণ্ড বা নীলকান্তমনি সন্ধানের খেতাব।

ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ এশিয়ার রত্ন রাজধানী হিসেবে পরিচিত শ্রীলংকার রত্নপুরা এলাকায়। এলাকাটি মূল্যবান পাথর উত্তোলনের জন্য বিখ্যাত হওয়ায় পাথরটি গবেষণা করে দেখতে ডাকা হয় রত্ন বিশেষজ্ঞদের। বিবিসি সূত্রে জানা যায়, পাথরের খণ্ডটি গবেষণা করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন— এটি যেনতেন কোনো রত্ন নয়, মূল্যবান স্টার সেফেয়ার ক্লাস্টার বা নীলাপাথরের বিশাল একটি খণ্ড এটি।

এর আগে এত বড় নীলাখণ্ডের সন্ধান পাওয়া যায়নি বিশ্বে। এ বিষয়ে রত্নপাথর বিশেষজ্ঞ জামিনি জয়সা বলেন, এর আগে আমি এত বড় নীলাখণ্ড দেখিনি।

ধারণা করা হচ্ছে, সন্ধান পাওয়া ফ্যাকাশে নীল রঙের এই নীলাখণ্ডটি ২৫ লাখ ক্যারেটের। আর ওজনে এটি কেজির হিসেবে প্রায় ৫১০ কিলোগ্রাম।

এ পাথরটির বিষয়ে প্রাথমিকভাবে বিশেষজ্ঞরা জানান, আন্তর্জাতিক বাজারে এ রত্নটির দাম ১০ কোটি মার্কিন ডলার বা ৮৪৮ কোটি টাকারও বেশি হতে পারে।

মূল্যবান এই নীলাখণ্ডটি যার বাড়ির উঠানে পাওয়া গেছে তিনি নিজেও একজন রত্ন ব্যবসায়ী। তবে নিরাপত্তার জন্য তার নাম, পরিচয় ও বাড়ির ঠিকানা জানাতে চাননি। তবে তিনি জানান, কুয়া খননকারী শ্রমিকরা আগেই জানিয়েছিল যে, মাটির নিচে মূলবান পাথর পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু এত বড় রত্ন মিলবে সেখানে এটি ভাবেননি তারা।

ইতোমধ্যে এ পাথরটির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। এটি পরিষ্কার করার পর স্বীকৃতির জন্য উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানা যায়।