ঢাকা, বুধবার, ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি, দুপুর ১২:৫৫

ঈদে বিফ শাহী রেজালা আনবে বাড়তি স্বাদ

গরুর মাংসের বিফ রেজালা রেসিপি মূলত বড় বড় আয়োজনগুলোতে তৈরি করা হয়। তবে ভোজনরসিকদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হওয়ায় অনেকেই বাড়িতে তৈরি করে থাকেন। রেজালা তৈরি করার জন্য গরু বা খাসির মাংস প্রয়োজন হয়। রেজালা তৈরির ক্ষেত্রে মাংসগুলো হাড় ছাড়া নিলে ভালো। আর মাংস গুলো যদি একটু বড় বড় পিস হয় সে ক্ষেত্রে রেজালা রান্নার পর দেখতেও সুন্দর লাগে।

 

প্রথমেই চুলায় একটি পাত্রে পৌনে এক কাপ সয়াবিন তেল হালকা গরম করে নিন। এর মধ্যে ছোট ৪-৫ টুকরা দারুচিনি ৭-৮টি সবুজ এলাচ ও লবঙ্গ এবং তিন-চারটা তেজপাতা দিয়ে ২০-৩০ সেকেন্ডের মত হালকা ভেজে নিন। বেরেস্তার মতো একেবারে ব্রাউন করার প্রয়োজন নেই।

পেঁয়াজগুলো যখন নরম হতে শুরু করবে তখন এখানে দেড় টেবিল চামচ রসুন বাটা, ২ টেবিল চামচ আদা বাটা, ২ টেবিল চামচ জিরা বাটা, হাফ চা চামচ করে জয় ফল, ১ টেবিল-চামচ হলুদের গুঁড়া, দেড় টেবিল চামচ ধনিয়ার গুড়া, ১ টেবিল চামচ লাল মরিচের গুঁড়া দিন। যদি ঝালের জন্য কাঁচামরিচ ব্যবহার করা হয় তাহলে নিজের স্বাদমতো দেওয়াই ভালো।
সামান্য একটু পানি দিয়ে এবার সবকিছু একসাথে খুব ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মসলাগুলো যত ভালোমতো কষানো হবে রান্নার স্বাদ কিন্তু ততই বেড়ে যাবে। প্রয়োজনে মসলা কষানোর জন্য আরও কিছুটা পানি দিয়ে নিতে পারেন। এরপর এতে মাংসগুলো দিয়ে খুব ভালো করে মাখিয়ে নিয়ে। মিডিয়াম আঁচে ঢাকনা দিয়ে মাংসগুলো কষাতে হবে। তবে কষানোর প্রথম পর্যায় কোন পানি দেওয়ার প্রয়োজন নেই। কারণ মাংস থেকে যথেষ্ট পানি বের হবে।
স্বাদমতো কিছুটা লবণ দিন। ঢাকনা খুলে মাঝে মধ্যে মাংসগুলোকে নেড়ে দিতে হবে। যাতে নিচ থেকে লেগে না যায়। রান্না শেষ হলে চুলা বন্ধ করে দেয়ার সময় ঘি দিয়ে মাংসটা দমে ঢেকে রাখুন। ব্যাস তৈরি হয়ে গেলে পরিবেশন করুন মজাদার বিফ শাহী রেজালা।