ঢাকা, বুধবার, ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি, দুপুর ১:১২

সোশ্যাল দুনিয়াকে বিদায় জানালেন সৌরভ

বিতর্ক কিছুতেই যেন পিছু ছাড়ছে না টালিউডের অভিনেতা সৌরভ দাসের। তৃণমূলে যোগ দেওয়া থেকে শুরু করে বোনের সঙ্গে একটি আপত্তিকর ও বিতর্কিত ভিডিও ভাইরাল। সব কিছু যেন নেটদুনিয়ায় সমালোচনার ঝড় তুলেছিল। যদিও বিষয়টি নিয়ে নিজের সাফাই দিয়েছেন সৌরভ, তবুও কটূক্তি থামছে না।

এর মাঝেই আবার লিভ ইন পার্টনার অনিন্দিতা বসুর সঙ্গে সৌরভের ব্রেকআপ ও সহ-অভিনেত্রী মধুমিতা সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার খবর চাউর হয়েছে। সেটিও নিছক রটনা বলেই দাবি করেছেন সৌরভ। সম্প্রতি এই তারকা বেড়াতে গেছেন ভারতের ঝাড়গ্রামে।
সেখান থেকেই ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে জানান, আপাতত নেটমাধ্যম থেকে বিদায় নিতে চান তিনি। সৌরভের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বৃষ্টিভেজা বিকেলের ছবি। ঘরের ভিতরের আলো-আঁধারি আর বাইরের সুবজের উপর ঝরে পড়ছে বারিধারা। ঘরের ব্যাকলনিতে দাঁড়িয়ে থাকা সৌরভের ঝলকও সেলফি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। নেপথ্যে বাজছে অরিজিত সিংয়ের গান।
সৌরভ লিখছেন, ‘আপাতত এটাই আমার শেষ পোস্ট। হয়তো কয়েক দিন বাদে আবার ফিরব। ততদিনের জন্য বিদায় বন্ধুরা। সুস্থ থাকবেন, ভাল থাকবেন।’ নীচে হ্যাশট্যাগে যোগ করেছেন ‘সোশ্যাল ডিটক্স’।
সোশ্যাল মিডিয়াকে আচমকা বিদায় জানানোর কারণ হিসেবে এক সাক্ষাত্কারে সৌরভ বলেছেন, ‘আমার ফেসবুক পেজে আমাকে আক্রমণ করা হলে আমার বাবা-মা আমার হয়ে পাল্টা মন্তব্য করেন। এরপর তাদের দিকে নানারকম জঘন্য ইঙ্গিত ধেয়ে আসে।’
বাবা-মাকে অনেক বুঝিয়েছেন বলেও জানান সৌরভ। কিন্তু ছেলের অপমান মেনে নিতে পারেন না তারা। সৌরভ জানিয়েছেন, কিছুদিন পর যদি মানসিক অবস্থা বদলায় তাহলে হয়ত ফের ভার্চুয়াল দুনিয়ায় ফিরবেন। ভবিষ্যতে নিজের প্রোফাইলগুলো জনসংযোগ দলের হাতেই হয়ত ছেড়ে দেবেন। এতদিন ফ্যানদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ রাখতে গিয়ে নিজেই সবটা ম্যানেজ করতেন। কিন্তু আর কটূক্তি হজম করতে পারছেন না।