ঢাকা, বুধবার, ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি, রাত ২:৫৬

ডুবে যাওয়া বাল্কহেডে মিলল দুজনের মরদেহ

অবশেষে ডুবে যাওয়া বাল্কহেডে মিলেছে দুইজনের মরদেহ। দুর্ঘটনার ১২ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার (১০ মে) দুপুরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে কোস্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

এর আগে ভোরে চাঁদপুরের মতলব উপজেলার দশানি মোহনপুর এলাকায় মেঘনা নদীতে বালিবাহী এই বাল্কহেডটি রহস্যজনক কারণে ডুবে যায়। এ ঘটনায় বাল্কহেডে থাকা চার শ্রমিকের মধ্যে দুইজন সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও অন্য দুইজনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

দুর্ঘটনাকবলিত বাল্কহেড থেকে প্রাণে রক্ষা পাওয়া দুইজন নাঈম সিকদার (৩০) ও মো. মহিউদ্দিন (৩৫) জানান, রাতে তারা চারজন ঘুমিয়ে ছিলেন। এসময় নোঙ্গর করা বাল্কহেড হঠাৎ ডুবে যায়। কিন্তু কি কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে, ফলে ঘুমে থাকায় তারা কোনো কিছুই আঁচ করতে পারেননি। এরমধ্যে এই দুজন রক্ষা পেলেও মিজানুর রহমান (২৫) ও সাজু সিকদার (২৩) নামে আরও দুইজন নিখোঁজ হন।

খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস যৌথভাবে নিখোঁজ বাল্কহেড ও দুইজনের সন্ধানে অভিযান শুরু করে। তবে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় ডুবে যাওয়া বাল্কহেডে নিখোঁজদের সন্ধান মেলে। এ সময় তাদের মরদেহ উদ্ধার করে উদ্ধারকর্মীরা।

মতলব উত্তরের মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. অহিদুজ্জামান জানান, দুর্ঘটনার শিকার বাল্কহেডের চার স্টাফের বাড়ি বরগুনা জেলার তালতলী এলাকায়।

তিনি আরও জানান, মৃতদের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এই ঘটনায় মতলব উত্তর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।