ঢাকা, শনিবার, ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি, রাত ৯:৫৮

বাজেটে মোবাইল অপারেটরদের দাবি

অনলাইন ডেস্ক::

নতুন অর্থবছরের জন্য চূড়ান্ত বাজেটে করপোরেট করহার কমানো, সিম ট্যাক্স তুলে দেয়াসহ বিভিন্ন সুবিধার দাবি জানিয়েছে মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন এমটব। সংগঠনটির দাবি, সরকার তাদের যৌক্তিক প্রস্তাবগুলো মানলে ২০২৫ সাল নাগাদ এখাত থেকে রাজস্ব আদায় বাড়বে ৩ হাজার কোটি টাকা।

মঙ্গলবার (৮ জুন) বিকেলে প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট পরবর্তী ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সংগঠনের নেতারা।

যোগাযোগ থেকে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড, শিক্ষা-চিকিৎসাসহ জরুরি নানা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে দেশের মোবাইল টেলিকম খাত। দীর্ঘদিন ধরে এখাতের উন্নয়নে কর কাঠামো পুনর্বিন্যাসে বিভিন্ন প্রস্তাব জানিয়ে আসছে মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন-এমটব।

প্রস্তাবিত বাজেটে টেলিকম খাতের প্রত্যাশা-প্রাপ্তি তুলে ধরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের দাবির পক্ষে যুক্তি তুলে হতাশার কথা জানান, এমটব মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এস এম ফরহাদ। বলা হয়, বর্তমান কর কাঠামোতে চললে ২০২৫ সাল নাগাদ এ খাত থেকে রাজস্ব আদায় ১৫ হাজার কোটি টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়াবে ১৬ হাজার কোটি টাকায়, আর অপারেটরদের প্রস্তাব মানলে তা হবে ১৮ হাজার কোটি টাকা।

এস এম ফরহাদ বলেন, করপোরেট করহার কমানো, সিম ট্যাক্স তুলে দেওয়ার মতো বিষয়গুলো যদি বিবেচনা করা হয়, তবে মোবাইল টেলিকমের রাজস্ব ২০২৫ সালে ২৬ হাজার কোটি থেকে ৩২ হাজার কোটি টাকায় চলে যাচ্ছে। বা ২৮ হাজার কোটি টাকা ধরলেও ৩২ হাজার কোটি টাকা হবে। তাহলে সরকারের রাজস্ব ১৮ হাজার কোটি টাকার উপরে হবে।

এসময় মোবাইল অপারেটরগুলো জানায়, সরকারি কর্মকর্তারা তথ্য-বিশ্লেষণ করে রাজস্ব আয় বাড়ার ক্ষেত্রে এমটবের সঙ্গে একমত হলেও আস্থাহীনতার কারণেই দূরদর্শী কোনো উদ্যোগ নিচ্ছে না জাতীয় রাজস্ব বোর্ড।

বাংলালিংক চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, আমি মনে করি, সরকারের অনেক লোকই এটা বুজতে পারছে। কিন্তু তাদের মধ্যে সংকট কাজ করছে এটা নিয়ে যে এখানে যদি কর কমানো হয়, তবে সত্যি সত্যিই কি পুনরুদ্ধার করতে পারবে কিনা।

করকাঠামো পুনর্বিন্যাস না করার কারণে ডিজিটাল বাংলাদেশে কর্মসংসস্থান সৃষ্টিসহ এখাতের সম্ভাবনার সবটুকু কাজে লাগানো যাচ্ছে না বলে দাবি এমটবের।