ঢাকা, বুধবার, ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি, রাত ২:০৫

‘গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞ, বাইডেনের মানবাধিকার কোথায়?’

শপথ নেওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এমন এক পররাষ্ট্র নীতি অবলম্বনের অঙ্গীকার করেছিলেন, যেটি হবে মানবাধিকারকেন্দ্রীক। যা আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নিয়মভিত্তিক ব্যবস্থায় পরিচালিত হবে।

কিন্তু বর্তমানে জেরুজালেম থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করছে ইসরায়েল। দখলদার দেশ হিসেবে ইসরায়েল তার বাধ্যবাধকতা মানছে না। গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় ১৪০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৩৯টি শিশু ও ২২ জন নারী রয়েছেন।

এবার আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলা এবং ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের মানবাধিকারের লঙ্ঘনের নিন্দা জানাতে জো বাইডেনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ১৪০টি প্রগতিশীল গোষ্ঠী।

এক বিবৃতিতে ফিলিস্তিনি পরিবারগুলোকে উচ্ছেদ চেষ্টার নিন্দা জানাতে ও সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধ প্রতিরোধে ইসরায়েলের ওপর কূটনৈতিক চাপ প্রয়োগে বাইডেন প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তারা।

বিবৃতিতে সই করেছে, অ্যাডভোকেসি গ্রুপ মুভঅন, ওয়ার্কিং ফ্যামিলিজ পার্টি, দ্য সানরাইজ মুভমেন্ট অ্যান্ড জাস্টিস ডেমোক্র্যাটস। ইসরায়েলের প্রতি বাইডেন প্রশাসনের প্রশ্নাতীত সমর্থন দেওয়ার মধ্যেই তাদের কাছ থেকে এই আহ্বান এসেছে।

শেখ জাররাহ পাড়া থেকে ফিলিস্তিনি পরিবারকে উচ্ছেদে যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত হবে বলে মূল্যায়ন করেছে জাতিসংঘ।

বিবৃতিতে তারা বলেন, উচ্ছেদ, বাড়িঘর বিধ্বস্ত, বাস্তুচ্যুতের মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার চলমান নীতি থেকে ইসরায়েল এসব পদক্ষেপ নিয়েছে। শহরে জনমিতি পরিবর্তন করে ইহুদি সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন ও তা বজায় রাখতেই জেরুজালেম থেকে ফিলিস্তিনিদের তাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীরা এটিকে জাতিগত নিধন হিসেবে আখ্যায়িত করেন। বিশ্লেষক ওমর বাদ্দার বলেন, জাতিগত নিধন মারাত্মক অপরাধ। কিন্তু বাইডেন প্রশাসনের তরফে তা নিয়ে কোনো উদ্বেগ প্রকাশ করা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, বাইডেন প্রশাসনের পররাষ্ট্রনীতিতে মানবাধিকার সবার আগে প্রাধান্য দেওয়া হলে ইসরায়েলকে জবাবদিহিতার আওতায় নিয়ে আসার সময় এখনই।

বিবৃতিতে আরও সই করেছে প্রগ্রেসিভ ডেমোক্র্যাটস অব আমেরিকা, জিইউস ভয়েস ফর পিস, উইন ইউদাউট ওয়ার, আওয়ার রেভ্যুলুশন, দ্য ইউএস ক্যাম্পেইন ফর প্যালেস্টিনিয়ান রাইস, ইসরায়েল/প্যালেস্টাইন মিশন নেটওয়ার্ক অব দ্য প্রেসবিটারিয়ান চার্চ।

এসব সংগঠন বাইডেনকে আন্তর্জাতিকভাবে মানবাধিকার রক্ষায় তার নিজের প্রতিশ্রুতি পালনের আহ্বান জানিয়েছে। তারা বলেন, বাইডেন প্রশাসন বারবার বলেছে যে তাদের পররাষ্ট্রনীতি ও আন্তর্জাতিক আইনের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে মানবাধিকার। কাজেই সে অনুসারে আন্তর্জাতিক আইন মেনে হাজার হাজার ফিলিস্তিনিকে জোর করে বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদ প্রতিরোধে আহ্বান জানানো হয়েছে।