বৃহস্পতিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩২

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে রাস্তায় ফেলে পেটালেন সাংসদ হাজী সেলিমের ছেলে ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী

অনলাইন ডেস্ক: নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তার মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লাগে সাংসদ হাজী সেলিমের গাড়ির এরপরই গাড়ি থেকে লোকজন নেমে লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম নামের ওই কর্মকর্তাকে বেদম পিটিয়েছেন। আজ রোববার সন্ধ্যার দিকে ধানমন্ডিতে কলাবাগান ক্রসিংয়ের কাছে এই ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় থানা পুলিশের একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করে।

রাত সোয়া ১০ টার দিকে সংসদ সদস্যের স্টিকার লাগানো গাড়ি ও নৌবাহিনীর কর্মকর্তার মোটরসাইকেল দুই-ই ধানমন্ডি থানায় ছিল। তখন থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল্লাহ জাহিদ বিষয়টি দেখভাল করছেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন- দুই পক্ষই থানায়। আলাপ-আলোচনার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে। গাড়ির ভেতরে ওই সময় সাংসদ হাজী সেলিম ছিলেন না। তবে তাঁর ছেলে ও একজন নিরাপত্তারক্ষী ছিলেন।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিকদের বলেন- ঘটনাটি ঘটে সন্ধ্যা ৭ টা ৫৫ মিনিটের দিকে। তাঁর সামনেই সাংসদের গাড়ি থেকে নেমে এসে একজন নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর করেন। একপর্যায়ে ওই কর্মকর্তা আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন। এই প্রত্যক্ষদর্শী বলেন- তিনি এই ঘটনার ভিডিও ধারণ করেছেন।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়- আহত নৌবাহিনীর কর্মকর্তা নিজেকে লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম বলে পরিচয় দেন। এ সময় ওয়াসিম বলেন, তিনি বই কিনে স্ত্রীসহ মোটরবাইকে ফিরছিলেন। সাংসদের গাড়ির সঙ্গে তাঁর মোটরসাইকেলের ঘষা লাগে। তিনি তখনই মোটরসাইকেল থামান এবং কথা বলার চেষ্টা করেন। কিন্তু গাড়ির ভেতরে থাকা ব্যক্তিরা কিছুই শুনতে চাননি। গাড়ি থেকে বেরিয়ে দুই ব্যক্তি মারধর শুরু করে। মারধরের কারণে তাঁর (ওয়াসিম) দাঁত ভেঙে গেছে। তাঁর স্ত্রীর গায়েও হাত তোলা হয়েছে বলেওঅভিযোগ করেন তিনি। ঘটনাস্থলে লোকজন জমে গেলে সাংসদের গাড়ি ফেলে পালিয়ে যান চালক। পরে পুলিশ গাড়ি ও মোটরসাইকেলটি থানায় নিয়ে আসে। ভিডিওতে গাড়ির নম্বর দেখা যায় ঘ ১১-৫৭৩৬। গাড়িটি হাজী সেলিমের বলে জানায় ধানমন্ডি থানার পুলিশ।

এ বিষয়ে জানতে হাজী সেলিমের মুঠোফোনে একাধিকবার কল এবং শেষে খুদে বার্তা পাঠানো হলেও তিনি কোনো উত্তর দেননি।