বৃহস্পতিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩৯

নিজের মাথা নিজেরাই ফাটিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর চেষ্টা

ইউসুফ হোসেন নিরব, ভোলা থেকে।।

নিজের মাথা নিজেরাই ফাটিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে, ভেলুমিয়া ৫ নং ওয়ার্ড ফরাজী কান্দি গ্রামের গোলাম আলী ফরাজী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, ভোলা সদর উপজেলা ভেলুমিয়া ইউনিয়ন, ৫ নং ওয়ার্ড ফরাজী কান্দি গ্রামের গোলাম আলী ফরাজী বাড়ির,শাহিন আলম শুভ, তাদের নিজ গাছের সুপারি পড়তে গেলে, বনি আমিন ফরাজী বাধা দেয় এবং বলেন এই সুপারি গাছ আমাদের, তুই কেন সুপারি পারতে এসেছিস, এই কথা শুনে, বনি আমিন এর বাবা আব্দুল হক ফরাজী,মোহাম্মদ হেলাল, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, শেফালী বেগম, আয়েশা বেগম, তানজিলা বেগম, হাসনা বেগম সহ তাদের বাড়ির লোকজন সবাই ছুটে এসে, শাহিন আলম শুভকে গালমন্দ করতে থাকে, গালমন্দের এক পর্যায়ে, বনি আমিন ফরাজী, শাহিন আলম শুভকে চড় থাপ্পড় মারে, শাহিন আলম শুভর ডাক চিৎকার শুনে, শাহিন আলম শুভর, বড় ভাই মোহাম্মদ সাকিব ও তার বাবা, জামাল ফরাজী, ও তার, স্ত্রী ফাতেমা বেগম, ছুটে আসেন, বনি আমিন ফরাজী, ও তার বাবা,আব্দুল হক ফরাজী, মোহাম্মদ হেলাল, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, শেফালী বেগম, আয়েশা বেগম, তানজিলা বেগম, হাসনা বেগম, সহ লাঠিসোটা দিয়ে এলোপাতাড়ি, জামাল ফরাজী, মোহাম্মদ শাকিব, শাহিন আলম শুভ ও ফাতেমা বেগম কে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে, জামাল ফরাজী, ফাতেমা বেগম, মোহাম্মদ সাকিব ও শাহিন আলম শুভর, ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে আসে এবং রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা হয়, পথিমধ্যে বনি আমিন ফরাজী গংরা পথরোধ করে এবং বলে ওদেরকে এখানেই মেরে ফেলবো হাসপাতাল যাইতে দিমু না, এলাকার কিছু গণ্যমান্য লোকের সুপারিশে তাদেরকে হাসপাতাল যেতে দেওয়া হয়। বনি আমিন ফরাজী গংরা শলা পরামর্শ করার জন্য নিজ বাড়িতে চলে যায়, এবং নিজেদের ভিতর কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে, নিজেদের মাথা নিজেরা ফাটিয়ে মামলা করার জন্য থানায় যায়, মামলা করার পর মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে আমাদেরকে বলে এবার বুঝবি তোরা মজা, কত টাকা আছে তোদের, এবার দেখবো, মামলা যদিও উঠাই তোদের জরিমানা করাবো পাঁচ লক্ষ টাকা, রেডি থাকিস তোরা।