বৃহস্পতিবার, ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:২৩
কুড়িগ্রাম খাদ্য বিভাগে বস্তা ক্রয়ে দুর্নীতি ৭ কর্মকর্তা প্রত্যাহার বানারীপাড়ায় প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধার সম্পত্তি জবরদখলের পায়তারা বিশ্ব নবী (সাঃ) কে অবমাননা করার প্রতিবাদে কলাপাড়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ সাংবাদিক ফোরামের চরফ্যাশনে কমিটি গঠন সভাপতি মামুন- সম্পাদক মিজান করোনাকালে ১০ লাখের অধিক দুস্থ ও অসহায়কে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে: সিটি মেয়র উলিপুরে মেয়রের বাসা থেকে পরিচ্ছন্নকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার ভোলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চারজনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ বানারীপাড়ার কুরআন শিক্ষক হাফেজ       মাওলানা আনোয়ার হুজুর আর নেই আরও ৩০ ব্যক্তির মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল ১ নভেম্বর থেকে মাধ্যমিকের ৩০ দিনের সিলেবাস বাস্তবায়ন শুরু

তামিম-মাহমুদউল্লাহকে ছাড়িয়ে শীর্ষে নাজমুলরা

  স্পোর্টস ডেস্ক।

প্রেসিডেন্টস কাপে জাতীয় দলের দুই তারকা অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বাধীন দলকে ছাড়িয়ে শীর্ষে উঠে গেল নাজমুল হোসেন শান্তর একাদশ। তিন ম্যাচে দুই জয়ে চার পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে শান্ত একাদশ।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দলকে চার উইকেটে হারায় শান্ত একাদশ।  ওই ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৯৬ রানে অলআউট হয় রিয়াদরা।  জবাবে ৫৩ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেটে জয় নিশ্চিত করে শান্তরা

দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য সেই জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেনি শান্তরা।  তামিম ইকবালদের করা ২২১ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৭৯ রানে অলআউট হয়ে ৪২ রানে হেরে যায় শান্তরা।

শনিবার নিজেদের তৃতীয় ম্যাচেও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বাধীন দলের বিপক্ষে দাপুটে জয় পায় শান্ত একাদশ।

এদিন মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করে আফিফ হোসেন ও মুশফিকুর রহিমের জোড়া ফিফটিতে ৮ উইকেটে ২৬৪ রান সংগ্রহ করে শান্ত একাদশ।

দুর্ভাগ্য জাতীয় দলের তরুণ অলরাউন্ডার আফিফ হোসেনের। ইনিংসের শুরু থেকে অসাধারণ খেলেও মাত্র দুই রানে জন্য সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।   সাজঘরে ফেরার আগে ১০৮ বলে ১২টি চার ও এক ছক্কায় ৯৮ রান করেন আফিফ।  ৯২ বলে ৫২ রান করেন মুশফিকুর রহিম।  তবে মারকাটিং ব্যাটিং করেন ইরফান শুক্কর। ৩১ বলে চারটি বাউন্ডারি আর দুই ছক্কায় অপরাজিত ৪৮ রান করেন তিনি।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে আবু জায়েদ রাহী ও নাসুম আহমেদের তোপের মুখে পড়ে ১৩৩ রানে অলআউট হয় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের একাদশ। ১৩১ রানের বিশাল জয় পায় শান্ত একাদশ।