সোমবার, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৪৭

শীতের কুয়াশা – এস. এম. সোহাগ

শীতের কুয়াশা
এস. এম. সোহাগ

কাপছি আমি দারুন শীতে-
হাড় কাপানো হিমেল হাওয়া।
চার দেয়ালে বন্ধি আমি-
বাইরে কভু যায়না যাওয়া।

করছি শরীর ঊষ্ণ কিছু-
শীতের কাপড় জড়িয়ে গায়ে।
সুয়েটার আর শাল চাদরে-
মুজো পড়েছি হাতে পায়ে।

তিন বেলাতেই গরম খাবার-
পানি সমেত করছি আহার।
জানালা খুলে বাইরে দেখি-
আহারে কি শীতের বাহার৷

ঠান্ডা সবি বাদ দিয়েছি-
গোসলেতেও গরম পানি।
মেঝের উপর পা লাগিয়ে-
দেখি ভাই শীত কতখানি।

সূর্য্যি মামা ঘুম পড়েছে-
মাঝে মধ্যে উকিমারে।
গায়ে ছেলে যুবক বুড়ো-
ভির করেছে চুলোর ধারে।

কুয়াশা যেন বৃষ্টি সম-
দিন রাত যেন তুষার ঝড়ে।
রাস্তা ঘাটে বেরিয়ে দেখি-
কিছুই নাহি চোখে পড়ে।

রাস্তা পাশে বস্তা পড়ে
কুকড়ে শুয়ে কাতর মরা।
চোখ মেলে কেউ দেখেনা বাপু-
মানুষতো নয়তো, টোকাই ওরা।

কেউ দেখেনা কষ্ট ওদের-
কিভাবে কাটায় শীতে দিন।
কুকড়ে থাকে দিনের বেলা-
রাত কেটে যায় নিদ্রাহীন৷

একটু দেখো বাইরে এসে-
হাত দুখানা বাড়িয়ে দিন।
দাও বিলিয়ে শীতের পোশাক-
সুখ পাবে ভাই শীমাহীন।