মঙ্গলবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, রাত ১:০৭

ভারতের চেয়ে ৪৭ শতাংশ বেশি দামে টিকা কিনছে বাংলাদেশ

অক্সফোর্ডের টিকা ব্যাপকভাবে উৎপাদন করছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট। এ প্রতিষ্ঠান থেকে ৩ কোটি ডোজ টিকা কেনার চুক্তি করেছে বাংলাদেশ।

সোমবার (১২ জানুয়ারি) রয়টার্স জানায়, সেরাম বাংলাদেশের কাছে প্রতিডোজ টিকা বিক্রি করবে ৪ ডলার দামে। ভারত সরকার যে দামে কিনছে সেরাম সেই টিকা বাংলাদেশের কাছে ৪৭ শতাংশ বেশি দামে বিক্রি করবে।

নভেম্বরে সেরামের সঙ্গে ওই চুক্তি করে বাংলাদেশ। সোমবার বাংলাদেশের একজন কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানান, সেরামের উৎপাদিত টিকা কোভিশিল্ডের প্রথম চালান এ মাসের ২৫ তারিখের মধ্যে পাওয়া যাবে। আগামী মাসের শুরুতে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

একটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, বাংলাদেশের জন্য প্রতিডোজ টিকার মূল্য ৩ ডলারের মধ্যে রাখা উচিৎ ছিল। তবে তিনি বিস্তারিত জানাননি। বাংলাদেশ সরকারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আগে কেউ নাম প্রকাশ করতে চাননি। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্য সচিব এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

সেরাম ৫ কোটি ডোজ টিকার মজুদ করেছে। ভারত সরকারের কাছে ১ কোটি ১০ লাখ ডোজ বিক্রির চুক্তি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সেখানে প্রতিডোজ টিকার দাম ধরা হয়েছে ২ দশমিক ৭২ ডলার বা ২০০ রুপি। আর বাংলাদেশের কাছে বিক্রি করছে ৪ ডলারে। যা ভারতের দামে দেড়গুণের বেশি।

১৩৫ কোটি জনসংখ্যার ভারতের টিকার ব্যাপক চাহিদা থাকায় দাম কম ধরা হয়েছে বলে জানায় সেরাম। ইতোমধ্যে দেশটির কর্তৃপক্ষ কোভিশিল্ডের টিকার জরুরি অনুমোদন দিয়েছে।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা, গেটস ফাউন্ডেশন এবং জাভি ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্সের সহযোগিতায় সেরাম একশ’ কোটি ডোজের বেশি টিকা নিম্ন আয়ের দেশগুলোর জন্য সরবরাহ করবে।

বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৫ লাখ ২৩ হাজারের বেশি মানুষের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছে ৭ হাজার ৮০৩ জন।