বুধবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:০৬

বাংলাদেশকে ফেবারিট মানছে উইন্ডিজও

অভিজ্ঞ বাংলাদেশ দলকে ফেবারিট মানলেও, পরিকল্পনার বাস্তবায়ন করে স্বাগতিকদের বিপক্ষে জয়ের স্বপ্ন দেখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। আগের সিরিজগুলোতে স্পিন সামলাতে হিমশিম খাওয়া উইন্ডিজ এবার সতর্ক সাকিব-মিরাজদের সামলাতে। অনভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা টাইগারদের জন্য ভয়ঙ্করও হতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি ব্র্যাথওয়েটের
বাংলাদেশে উইন্ডিজ পা রেখেছে ৪ দিন হলো। করোনায় নিউ নরমাল জীবন ঘরবন্দী করেছে ক্রিকেটারদেরকে। বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন শেষ হচ্ছে উইন্ডিজের।

ঘরের মাঠে যখন সিরিজ আর দলটা উপমাহাদেশের বাইরের, তখন টাইগারদের মূল অস্ত্রটা হবে স্পিন; জানা রয়েছে উইন্ডিজের। আগের অভিজ্ঞতা রয়েছে স্পিন বিষে কাটা পড়ার। তাই এবার সতর্ক দল। জানালেন ক্যারিবিয়ান টেস্ট অধিনায়ক।

ব্র্যাথওয়েট বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চ্যালেঞ্জগুলো উতরে যেতে আপনাকে পথ খুঁজে পেতেই হবে। এর আগে তাদের স্পিনাররা আমাদের ভুগিয়েছে। শেষ সিরিজের পর আমরা পর্যালোচনা করেছি। আমাদের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা আমাদের চ্যালেঞ্জ বাস্তবায়ন করতে চাই।

আনকোরা দল দিয়ে আলোচনায় উইন্ডিজ। বর্তমান দলটার অনেকেই নতুন। টাইগারদের কাছেও অচেনা দলটা। এর সুযোগটা নিতে চান উইন্ডিজ ক্যাপ্টেন। অনভিজ্ঞ হলেও, দলটা নাকি আত্মবিশ্বাসী! সুযোগটা নিতে চান ভাল কিছু করে।

ব্র্যাথওয়েট বলেন, আমার মনে হয় এখানে ভাল একটি দল এসেছে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ভাল করার সামর্থ্য আছে। যারা এসেছেন, আমরা খর্বশক্তির দল মনে করি না। দলটার উপর আমার আত্মবিশ্বাস রয়েছে। আশা করি ছেলেরা যে সুযোগটা পেয়েছে তা কাজে লাগাবে। তাছাড়া বাংলাদেশেরও আমাদের সম্পর্কে অজানা। এটা ইতিবাচকও হতে পারে।

টাইগার শিবিরটা পরীক্ষিত। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে ফেরার অপেক্ষায় সাকিব। তাই তো চিন্তা আছে তাকে নিয়ে। তাছাড়া সিনিয়র ক্রিকেটারদের নিয়ে রয়েছে পরিকল্পনা।

উইন্ডিজ অধিনায়ক বলেন, সাকিব এই সিরিজে ফিরেছে। ও খুবই গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। মুশফিক ভাল খেলছে। সত্যি বলতে ওদের মূল ক্রিকেটারদের সবাই আছে। আমাদের সামনে চ্যালেঞ্জ তাদের সামাল দেয়া। আশা করি তরুণরা সেই কাজটা পরিকল্পনা মতো করতে পারবেন।

এর আগে ৫টি টেস্টে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে অধিনায়কত্ব করে একটি ম্যাচেও জয়ের মুখ দেখেননি ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট।